group sex golpo নিজের বউ কে নিয়ে পাস পাস খেলা – 1

bangla group sex golpo choti. রাজ  ঐন্দ্রিলার এর নতুন ফ্ল্যাটের গৃহপ্রবেশে  সস্ত্রীক আমন্ত্রণ পেয়েছিল  তন্ময়। সে আর তার সায়নী  রাজ এর ফ্ল্যাটে ডিনার সারবার পর একসাথে বসে খোশ গল্প করছিল। গল্পঃ শুরু করার আগে এই গল্পের মূল চরিত্র গুলোর পরিচয় দেওয়া যাক। এই গল্পের মূল পুরুষ চরিত্র যে দুজন  রাজ আর তন্ময় দুজনেই সমবয়সি, ওরা একসাথে এক স্কুলে আর পরে এক কলেজে পড়াশোনা করেছে।  ওদের দুজনের বয়স ই এখন ৩৬- ৩৭ বছর। দুজনেই ভালো উচু পোস্ট এ পৃথক দুটি মালটিনাশনাল কোম্পানিতে কাজ করে।

রাজ এর স্ত্রী ঐন্দ্রিলা সুন্দরী অসাধারণ আধুনিকা বাক্তিত্বময়ী নারী।  তার ৩২ বছর বয়স। সে একজন সফল ফ্যাশন ডিজাইনার, রাজ এর মতন ই রোজগার করে, বিরাট পয়সা ওলা ঘরের মেয়ে। আর অন্যদিকে তন্ময় এর স্ত্রী সায়ণী র গায়ের রং একটু চাপা হলেও  ও বেশ সুন্দরী।  তবে তার চাল চলন একটু সাবেকি মিডল ক্লাস ঘরানার নারীদের মতন, সে স চরাচর চেনা গণ্ডির বাইরে বেরোয় না।  সায়নীর ২৮ বছর বয়স, তন্ময় এর সঙ্গে ৭ বছরের বিয়ে আর ওদের একটা ফুটফুটে সুন্দর প্রাণবন্ত বছর পাঁচেক এর মেয়ে তিয়াশা।

group sex golpo

সায়নী ছোট শহরের মেয়ে , সে ঐন্দ্রিলার মতন রোজগার করে না। সে সাধারণ গৃহবধূ।  স্বামী আর মেয়ে কে নিয়েই তার জগৎ। রাজ ঐন্দ্রিলার বিয়ে প্রায় ১০ বছর হয়ে গেছে। কিন্তু তাদের কোনো সন্তান হয় নি । অবশ্য এ নিয়ে ওদের মধ্যে বিন্দুমাত্র আক্ষেপ নেই। তাদের নতুন ফ্ল্যাটে তন্ময় আর তার স্ত্রী কে ইনভাইট করে  একসাথে ডিনার করার পর, আসর যখন জমে উঠেছে, রাজ এর অনুরোধে ওয়াইন সার্ভ করছে ঐন্দ্রিলা, সায়নী যেহেতু ড্রিঙ্ক করে না তাই তার জন্য পেপসি অানানো।

এমন সময় সায়নীর মধ্যে একটু ইতস্তত অস্থির ভাব লক্ষ্য করা গেলো। ঘড়িতে প্রায় এগারোটা বেজে গেছিল, বাড়িতে তিয়াশা কে মাসীর কাছে রেখে এসেছিল। বলে এসেছিল সাড়ে দশটা র মধ্যে ফিরে আসবে। কিন্তু গল্পে গল্পে যে এতটা দেরি হয়ে যাবে এটা খেয়াল করে নি। সায়নীর ইতস্তত ভাব দেখে রাজ বললো, ” কী হয়েছে সায়ণী, তোমাকে এত অস্থির লাগছে কেনো?  এনিথিং রং?” সায়নী প্রথমে চেপে যাচ্ছিল, তারপর থাকতে না পেরে তার মনের অস্থিরতার আসল কারণ টা খুলে বলে ফেলল। group sex golpo

সায়নীর কথা শুনে, তন্ময় চুপ চাপ থাকলেও, রাজ আর ঐন্দ্রিলা দুজনে একসাথে হেসে উঠলো। হাসি থামিয়ে, ঐন্দ্রিলা সায়ানীর গম্ভীর হয়ে যাওয়া মুখের দিকে তাকিয়ে, তার  কাধে হাত রেখে বলল,” কম অন সায়নী তুই তো বাড়ি ছেড়ে বেরোস না খুব একটা, একদিন যখন বেড়িয়েছিস। বাড়ির কথা মেয়ের কথা ভাবা ছার না। সে ঠিক মাসীর কাছে খেয়ে দেয়ে  এতক্ষণে ঘুমিয়ে পড়েছে। ”

রাজ বললো, ” তন্ময় এই উইকএন্ড এ তোর কি প্ল্যান? ফ্রী আছিস? ” তন্ময়: হ্যা ফ্রি আছি। তবে সায়নী বলছিল তিয়াসা কে নিয়ে একবার ডাক্তারের কাছে যাবে, মন্থলি চেক আপ। তাছাড়া ওর একটা ভ্যাকসিন নেওয়া বাকি আছে। রাজ: ওকে ওটা কিছুদিন এর জন্য পোষ্ট পন করে দে, চল তুই আমি ঐন্দ্রিলা সায়নী এই চারজন মিলে ডায়মন্ড হারবার এর রিসোর্ট থেকে ঘুরে আসি। জাস্ট দুটো রাতের প্ল্যান। রিসোর্ট টা নতুন হয়েছে। আমার এক বন্ধুর থ্রু তে বুকিং পেতে কোনো অসুবিধা হয় নি। group sex golpo

আর এই ট্রিপ কিন্তু পুরোদস্তুর অ্যাডাল্ট ট্রিপ, এখানে  তিয়াশা র মতন ফুটফুটে বাচ্চা মেয়েকে সঙ্গে নেওয়ার প্রয়োজন নেই। সঙ্গে প্রচুর ড্রিঙ্কস নিয়ে যাবো। নিজেদের স্ট্রেস রিলিফ করতে যা যা করা যায় আমরা তাই তাই করবো।  এক টা শিশুর সামনে আমরা বোধ হয় ওতটা স্বাচ্ছন্দ্ হব না।  এখন বল, তোরা রেডী তো?চিন্তা করিস না, সব খরচ আমার।

তন্ময় রাজের প্রপোজাল শুনে একটু চুপ করে গেল। সায়নী র দিকে তাকালো। সে ইশারায় তন্ময় কে এই ট্রিপে যাওয়ার ব্যাপারে বারণ করলো। সেটা দেখে ঐন্দ্রিলা তন্ময়ের খালি হয়ে আসা গ্লাসে আরো রেড ওয়াইন ঢেলে দিয়ে বললো, ” সায়নীর বোধ হয় আমাদের সঙ্গ ঠিক পছন্দ না। তাই নারে সায়নী?” সায়নী  মাথা নেড়ে বললো,” না না ঐন্দ্রিলা দি, ব্যাপার টা ঠিক সেরকম না। আসলে মেয়ে কে ছেড়ে আমরা দুজনে এভাবে কোথাও বেড়াতে যাই নি। তাই এই প্রস্তাব মেনে নিতে সমস্যা হচ্ছে। এখন ও যদি যেতে চায় আমি কোনো আপত্তি করবো না। ”  group sex golpo

ঐন্দ্রিলা তন্ময়ের কাছে এগিয়ে এসে তার হাতে হাত ছুয়ে তাকে ওয়াইন খাইয়ে, বললো, ” কম অন তন্ময় দা, রাজি হয়ে যাও না। চারজন মিলে খুব মজা হবে। রিসোর্ট টা বেশ বড়, ওখানে সব ধরনের ব্যবস্থা আছে। দেখবে তোমাদের খুব ভালো লাগবে। প্লিজ রাজি হয়ে যাও।”
তন্ময় খানিকক্ষণ ভেবে ঐ প্রস্তাবে রাজি হয়ে ওদের সাথে সস্ত্রীক  উইকএন্ড এ রিসোর্ট এ যাবার বিষয়ে মত দিল। সেদিন বাড়ি ফিরে সায়নী নিজের বর কে একা পেয়ে নিজের অসন্তোষ প্রকাশ করলো।

সায়নী বললো,
” তুমি ভালো করে না ভেবেই আমাকে নিয়ে যাবে বলে প্রমিজ করে দিলে।”
তন্ময় জবাব দিলো, ” কি আর করবো বলো, এমন করে দুজনে মিলে বললো।”
সায়নী: তোমার বন্ধুর হাবভাব আমার আজ মোটেই ভালো লাগলো না। কিরকম একটা লোভাতুর দৃষ্টিতে বার বার  আমার দিকে খালি চেয়ে চেয়ে দেখছিল। আমার ভারী অস্বস্তি হচ্ছিল। group sex golpo

তন্ময়: তোমাকে আজ বেশ অন্যরকম লাগছিল। আমি তো বলি, সাজলে গুজলে তোমাকে আরো সুন্দর দেখায়। এসব নিয়ে বেশি ভেবো না। প্রমিজ করেছি যখন না গেলে খারাপ লাগবে। এই বলে তন্ময় পিছন দিক থেকে জড়িয়ে ধরে ঠোঁট সায়নীর কাধে চুমু খেল। তারপর সায়নীর পিঠে র উপর ব্লাউজের স্ট্রিপ খুলে, মুখ  ঘষতে ঘষতে সায়নীর মানভঞ্জন করা শুরু করলো। স্পর্শকাতর স্থানে ছোয়া পেয়ে সায়নীর মতন মেয়ে আস্তে আস্তে গলে যেতে শুরু করল, সে তার স্বামীকে অনুযোগের সুরে বললো, ” উফফ,  মাঝরাতে আবার এসব কি দুষ্টুমি শুরু করলে?  ঐ ছাই পাস গুলো খেলে তোমার এই ধরনের দুষ্টুমি বেড়ে যায়।”

তন্ময়: কি করবো বলো তো, ঐন্দ্রিলা কে দেখে ভেতরে ভেতরে গরম হয়ে গেছি। এখন ঠান্ডা না হলে রাতে ঘুম আসবে না।
সায়নী:  হ্যা সেতো বুঝেছিলাম, যেভাবে বার বার তন্ময় দা তন্ময় দা করে গায়ে ঢলে পরছিল, গরম তো খাবেই, টা আমার কাছে কেনো।।ঐন্দ্রিলা  দির কাছে যাও না । আমি কি তোমাকে আঁটকেছি নাকি? group sex golpo

তন্ময় পাগলের মতো সায়নীর পিঠে নিজের মুখ ঘষতে ঘষতে বলল, ” হাতের মুঠোয় এরকম একজন সুন্দরী স্ত্রী থাকতে আমার পর স্ত্রীর প্রয়োজন নেই। আমার কাছে এসো।” এই বলে সায়নী কে টেনে নিয়ে এসে ঠোঁট চেপে চুমু খেতে খেতে তাকে  বিছানায় শুয়ে দিল। তারপর আলো টা নিভিয়ে দিয়ে সায়নীর উপরে শুয়ে পড়লো। সায়নী ও পরম আবেশে নিজের স্বামী কে কাছে টেনে নিল।

তিন চারদিন পর উইকএন্ডে রিসোর্ট এ যাওয়ার দিন এসে গেলো। তন্ময় লাগেজ গোছানোর সময় ইচ্ছে করে সায়নী কে সব সময় ঘরে পড়বার পোশাক নিতে দিল না। উল্টে আধুনিক দুটি ড্রেস নিল যেগুলো সায়নী লজ্জায় কোনোদিন পরে দেখে নি। এছাড়া পার্লারে গিয়ে সায়নী কে আর্ম পিট শেভ করে আর চুল স্ট্রেট করে নিতে হয়েছিল, এছাড়া সায়নি কে প্রথমবার নতুন কেনা  হিলওলা স্টিলিটো জুতো পড়তে হয়েছিল তন্ময় এর  ইচ্ছে রাখতে। group sex golpo

রাজের আধুনিকা স্ত্রী ঐন্দ্রিলার পাশে যাতে নিজের বউ সায়ণী কে বেমানান না লাগে তন্ময় সেই চেষ্টা করছিল। যেহেতু সায়নী তন্ময় কে ভালোবাসে তাই ও মুখ বুজে ওর আবদার গুলো মেনে নিয়ে নতুন রূপে রিসোর্টে যাওয়ার  জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিল।  এই রিসোর্টে যাওয়ার ব্যাপারে রাজ ঐন্দ্রিলা আর তন্ময় এই  তিনজন বেশ খোশ মেজাজে থাকলেও সায়নীর মন খারাপ হয়ে গেছিল। স্বভাবত তাদের মেয়ে  তিয়াশার কারণে, সে আগের দিন মা বাবার সঙ্গে যাবে বলে কান্নাকাটি করছিল।

তাকে শেষ মেষ একটা বার্বি ডল কিনে দিয়ে, আদর করে , ফিরে এসে ওকে নিয়েও বেড়াতে যাওয়া হবে এরকম প্রমিজ করে তন্ময় আর সায়নী রাজ দের সঙ্গে বেড়াতে পেরেছিল। রাজ এর গাড়িতে করেই রিসোর্টে  যাওয়া হবে এটাই ঠিক হয়েছিল। রাজ আর ঐন্দ্রিলা সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ , তন্ময় আর সায়নী কে তাদের বাড়ি থেকে তুলে নিয়েছিল। গাড়িতে তন্ময় ছবি তুলতে তুলতে যাবে বলে সামনে ড্রাইভার এর পাশে বসলো। আর সায়নী কে ব্যাক সিটে  রাজ ঐন্দ্রিলার মাঝে বসতে হল। group sex golpo

এমনিতে সায়নী সব সময় শাড়ী ব্লাউজ পড়তে অভ্যস্ত হলেও সেইদিন তন্ময়ের অনুরোধে হালকা নীল রঙের স্লিভলেস সালোয়ার টপ আর তার সাথে সাদা রঙের লেগিংস পড়েছিল। এটা পরে সায়নী কে আরো অনেক বেশি সুন্দরী দেখাচ্ছিল।  রাজ আর ঐন্দ্রিলা দুজনেই সায়নীর সাজের খুলে তারিফ করেছিল। রাজ তো সায়নীর দিক থেকে জাস্ট চোখ ফেরাতে পারছিল না। সে ইচ্ছে করে গাড়ির ব্যাক সিটে সায়নীর কাছে  এসে তার গায়ে গা লাগিয়ে বসলো, ঐন্দ্রিলা ও এগিয়ে এসে সায়নীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ভাবে বসলো।

ও সব  সময় এর জন্য গাড়ি যতক্ষণ না গন্তব্যে পৌঁছালো, তার একটা হাত সায়নীর থাই মাসলে রেখে দিয়েছিল। মাঝে মাঝে আঙ্গুল দিয়ে সায়নীর  হাত আর  থাই তে বোলাচ্ছিল।  রাজ আর ঐন্দ্রিলা  দুজনেই গাড়ি চলতে আরম্ভ করতেই , মদের বোতল বার করে ফেলেছিল। রাম এর সঙ্গে   বিয়ার আর সোডা মিশিয়ে   কক টেল খেতে খেতে  ওরা বেশ ফুর্তিতে সময় কাটাচ্ছিল। সায়নী না করলেও তন্ময় ওদের অনুরোধ রাখতে কয়েক পেগ ড্রিংক চলন্ত গাড়ির মধ্যে নিতে বাধ্য হল। group sex golpo

মদের গন্ধে আর রাজ ঐন্দ্রিলার ওর গায়ের মধ্যে এসে পড়াতে সায়নীর  সব দিক থেকেই অসুবিধা হচ্ছিল। ও একবার দুবার বলবার  মদ খাওয়া বন্ধ করার কথা তুলেওছিল কিন্তু রাজ রা ওর কোনো  কথা শুনলো না। মাঝ রাস্তায় একটা ঝাঁকুনি খেতে রাজ একে বারে সায়নীর গায়ে র উপর এসে পড়লো। তার মাই টে রাজের হাত অ্যাকসিডেন্টালি ঠেকে গেছিল। সায়নী বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট র মতন চমকে উঠে রাজ এর দিকে তাকিয়েছিল। রাজ উল্টে কিছুই যেন হয় নি এমন ভাব দেখালো।

তার পর মুহূর্তে সায়নী যখন মাথা নিচু করে মনে মনে  নিজের এই ট্রিপে আসবার সিদ্ধান্ত কে দুষশে। তখন ই ঐন্দিলা  সায়নী কে চিয়ার আপ করে বলল, ” কম অন সায়নী, প্রথম বার আমাদের সঙ্গে এধরনের একটা ট্রিপে যাচ্ছিস। তাই এরকম অপ্রস্তুত লাগছে।দেখবি খুব তাড়াতাড়ি তোর  এটা অভ্যেস  হয়ে যাবে। নেক্ট বার থেকে তুইও আমাদের মতো এঞ্জোয় করবি ব্যাপার টা।” group sex golpo

রিসোর্ট এ পৌঁছে যে যার হাসব্যান্ড এর সাথে তাদের জন্য নির্দিষ্ট রুমে  লাগেজ নিয়ে ফ্রেশ হতে ঢুকলো। তারপরেই লাঞ্চ সেরে আসল খেলা শুরু হল।
তন্ময় আর সায়নী রাজ দের রুমে আসলো।  ততক্ষনে রাজ  গাড়িতে করে আনা মদের কার্টুন টা খুলে প্রয়োজনীয় বোতল সব বের করে ফেলেছে, আর ঐন্দ্রিলা রুম বয়  এর সৌজন্যে এদিকে ব্যাবস্থা করে ফেলেছে সোডা আর বরফের।  তন্ময় রা  ওদের রুমে এসে বসতেই, রাজ  চারটে গ্লাস পর পর সাজিয়ে  বোতলের ছিপি খুলে রঙিন পানীয় ঢালতে শুরু করলো।

ড্রিংক রেডি হলে, রাজ তন্ময় আর ঐন্দ্রিলা   একসাথে  ড্রিঙ্কস ভর্তি গ্লাস হাতে  তুলে নিল। আর একে অপরের  গ্লাসে গ্লাস ঠেকিয়ে চিয়ার্স করে  চুমুক দিল। সায়নী ওদের সাথে ড্রিঙ্কস নিল না।  শেষে ঐন্দ্রিলা বলল, কম অন সায়নী এই সব জায়গায় বেড়াতে এলে একটু ড্রিঙ্ক করতে হয় বুঝলি। সবাই করে। লেট টেস্ট ইট।” group sex golpo

রাজ ও ঐন্দ্রিলার সাথ দিল, ও বললো আমাদের কোম্পানি দিতে একটু খাও না। ঠোঁট টা ভেজাও তাহলেই হবে। সায়নী  বাধ্য হয়ে তার স্বামী তন্ময়ের দিকে তাকালো, তন্ময় বন্ধুদের সামনে সন্মান বজায় রাখতে  সায়নী কে ড্রিঙ্ক টা নিতে ইশারা করলো। সায়নী ও স্বামীর মান রাখতে জীবনে প্রথম বার মদের গ্লাসে চুমুক দিল।

সায়নীর ঐন্দ্রিলা দের মতন  মদ পান করার অভ্যাস না থাকায়, দুই পেগ খেতে না খেতেই সায়নীর মাথা ঝিম ঝিম করতে শুরু করলো, গা গুলিয়ে উঠলো। সায়নী ঐন্দ্রিলার হাত ধরে বললো, আমি আর খাবো না। আমার এসব সহ্য হয় না। ঐন্দ্রিলা কিছুতেই   সায়নীর কথায় কান দিল না।  আর তন্ময় একটু মদের নেশায় বুদ হতেই রাজ রা ইচ্ছে করে sex related topic নিয়ে আলোচনা শুরু করলো। তন্ময় ও নির্দ্বিধায় ওদের সঙ্গে ঐ আলোচনায় অংশ নিল। যত সময় যাচ্ছিলো সায়নীর মনের অস্বস্তি ভাব যেন পাল্লা দিয়ে বাড়ছিল। group sex golpo

তার একটা বড়ো কারণ ছিল রক তার দিক থেকে চোখ সরাতে পারছিল না।  এই ভাবে ড্রিংক সহযোগে যৌনতা নিয়ে কথা বলতে বলতে সায়নীর সালোয়ারের ওরনা টা বুকের উপর থেকে আচমকাই সরে গেছিল। সায়নীর আকর্ষণীয় স্তন বিভাজিকা ওদের সামনে পুরো উন্মুক্ত হয়ে পড়লো। বুকের উপর থেকে ওরনা যে সরে গেছে সায়নী প্রথমে টের পায় নি। কিছু মিনিট পর নিজের ব্রেস্ট শেপ নিয়ে রাজের কমপ্লিমেন্ট শুনে সায়নী সম্বিত ফিরে পায়। সে সাথে সাথে ওরনা টা তুলে বুকের মাঝে ঢাকা দিয়ে দেয়।

এই ব্যাপার টা ঐন্দ্রিলা দের ঠিক মনপ্রুত হয় না। সে মাঝ খান থেকে টিপ্পনী খেয়ে বলে হতে,  “উফফ সায়নী আমাদের সামনে তুই একটু বেশি লজ্জা পাচ্ছিস। এত সুন্দর মাই বানিয়েছিস, কেন ঢেকে রাকছিস বল তো। এই দেখ আমার মত ক্লিভেজ এক্সপোজ করা আরম্ভ কর।।দেখবি তোর দিক থেকে চোখ ফেরানো যাচ্ছে না। group sex golpo

হা হা হা..” এই বলে ঐন্দ্রিলা সায়নীর বুকের উপর থেকে ওরনা টা সরিয়ে দেয়। যার ফলে আবার আগের মত সায়নীর ক্লিভেজ এক্সপোজ হয়ে যায়। সায়নী অসহায় দৃষ্টিতে নিজের বরের দিকে তাকায়। তন্ময় সায়নীর মনের কথা বুঝতে পেরে ঐন্দ্রিলা কে বলে, ” আসলে সায়নীর এসব কিছুর অভ্যাস নেই। ও যখন comfortable feel করছে না তো থাক না।”

ঐন্দ্রিলা এই কথা শুনে হাসলো তারপর বলল, “কম অন তন্ময় দা আমি জানি ও কিভাবে নিজেকে আরও সুন্দর করে প্রেজেন্ট করতে হয় জানে না। কিন্তু আমাদের সমাজে ওঠা বসা করতে গেলে  ওকে আস্তে আস্তে  এসব আদব কায়দা শিখতে হবে। আমি সায়নী কে আমার পার্টনার করে নেবো। ও আমাকে assist করবে। আর তুমি কিচ্ছু ভেবো না। ওকে মানুষ করার দায়িত্ব এখন আমার। দেখো না তোমার বউ এর পুরো ভোল পাল্টে ছেড়ে দেব।”
এই কথা শুনে তন্ময় আশ্বস্ত হলেও সায়নী অসহয়তা আরো কয়েক গুণ বেড়ে গেল।।

রাজ বলে উঠলো , ” এবার একটা কাজের কথা হোক, ঐন্দ্রিলা ডার্লিং আমরা কে কোথায় কার কার সঙ্গে শোবো, সব ডিসাইড করে দাও।” রাজের কথা শুনে সায়নীর বুকের মাঝে হৃদ স্পন্দন এর গতি আরো বেড়ে গেল। group sex golpo

ঐন্দ্রিলা এক চুমুকে তার হাতে ধরে রাখা গ্লাস এর মদ শেষ করে, সায়নীর কাধে হাত রেখে বলল,” এতে ঠিক করার কি আছে। আমরা এখানে দুটো কাপল  অ্যাডভেঞ্চার করতে এসেছি। আমাদের মনে যেটা আছে,  আজ থেকেই শুরু হোক না। বেকার দেরি করে কি লাভ? আমি আর তন্ময় দা এই রুমে থাকছি। তুমি আর সায়নী পাশের রুমে… কি সবাই রাজি তো?”

রাজ   উৎসাহে হাততালি দিয়ে ঐন্দ্রিলার বক্তব্য কে সমর্থন জানালো। তন্ময় আর সায়নী ঘাবরে গিয়ে একে অপরের মুখের দিকে চাইলো।
রাজ বলল, ” ক্যা বাত, আমার মনের কথা তুমি বলে ফেললে। কি তন্ময় তুই রেডি আছিস তো নিজের স্ত্রী কে আমার সঙ্গে swap করতে? আমার কিন্তু ঐন্দ্রিলা কে তোর হাতে ছাড়তে কোনো আপত্তি নেই। হা হা হা…।” group sex golpo

সায়নী র এই প্রস্তাবে সমর্থন ছিল না। সে তার বরের দিকে তাকিয়ে আপত্তি সূচক  মাথা নাড়ল। সায়নীর মনের কথা আচ করতে পেরে তন্ময় কিছু বলতে যাবে এমন সময় ঐন্দ্রিলা এসে তন্ময় এর গায়ে গা লাগিয়ে ঘনিষ্ট হয়ে বসলো। তন্ময় এর বা কাধের উপর একটা চুমু খেয়ে বলল, ” কম অন তন্ময় দা প্লিজ রাজি হয়ে যাও। We shall have fun…”

তন্ময় ঐন্দ্রিলার শরীরের মিষ্টি পারফিউম এর গন্ধ শুষে নিয়ে বললো, তুমি এইভাবে রেকোয়েস্ট করলে আমার পক্ষে তো না বলা কঠিন। কিন্তু সায়নী….”।
ঐন্দ্রিলা তন্ময় কে মাঝ খানে থামিয়ে দিয়ে বলল কম অন তন্ময় দা, আজ রাতে কেবল তুমি আর আমি। সায়ানীর প্রব্লেম বলে তুমি আর আমি তো কম্প্রোমাইজ করতে পারি না।” এই বলে ঐন্দ্রিলা তন্ময়ের  আরো গায়ে পরে তার হাতের খালি গ্লাসে বোতল থেকে মদ ঢেলে দিল। তন্ময় মন্ত্র মুগ্ধের মতন চুক চুক করে সেই পানিয় খেতে লাগলো। group sex golpo

সায়নী র দিকে তাকিয়ে চোখ মেরে ঐন্দ্রিলা তন্ময়ের গালে চুমু খেল। তন্ময় কে সরাসরি জড়িয়ে ধরলো।  সায়ণী এই দৃশ্য সহ্য করতে পারলো। দুঃখে যন্ত্রণায় মুখ অন্য দিকে ঘুরিয়ে নিল। ঐন্দ্রিলা নিজের ড্রেসের বুকের উপর এর বোতাম গুলো গুলো স্তন বার করে তন্ময় কে তার শার্ট এর কলার ধরে টেনে এনে ওর মুখ টা নিজের স্তন ভিভাজিকার  মাঝে চেপে ধরলো। তন্ময় নিজেকে ছাড়াতে তো পারলো না একটু একটু করে ঐন্দ্রিলার হট আবেদনময়ী শরীরের প্রতি আকর্ষিত হয়ে নিজের স্ত্রীর ব্যাপারে সম্পূর্ণ ভুলে গেল।

এই দৃশ্য দেখে সায়নীর মতন সরল চরিত্রর বিবাহিত নারীর পক্ষে স্থির হয়ে বসে থাকা সম্ভব হল না। সে স্বামীকে পরস্ত্রীর প্রতি আকর্ষিত হবার  যন্ত্রণা ভুলতে  রাজ এর দেওয়া মদিরা পূর্ণ গ্লাসে নিজের থেকেই চুমুক দিল। রাজ ইচ্ছে করেই সায়ণীর জন্য একটু স্ট্রং করে ড্রিংক টা বানিয়েছিল। গ্লাসের  পুরো পানীয়টা একবারে সায়ণী শেষ করতে পারলো না। মাঝখানে ওর কাশি এসে গেল। তারপরেও সায়ণী থামলো না। যন্ত্রণা ঢাকতে হার্ড ড্রিংক টা দুইবারের চেষ্টায় শেষ করলো। group sex golpo

ওটা শেষ করার সাথে রাজ আরো এক পেগ হার্ড ড্রিংক সায়নীর জন্য হাতে সাজিয়ে দিল। ঐন্দ্রিলা সায়নী কে জ্বালানোর জন্য নিজের টপ খুলে নিজের  ডিজাইনার ব্রা সবার সামনে নিয়ে আসলো। তন্ময় ও ঐন্দ্রিলার প্ররোচনায় আস্তে আস্তে নিজের শার্ট খুলে ফেলে ঐন্দ্রিলা কে জড়িয়ে ধরে চুমু খেতে আরম্ভ করলো। এই দৃশ্য দেখে সায়নীর চোখ থেকে টস টস করে জল  পড়ছিল। সেই মদের সাহায্যে নিজের যন্ত্রণা ভুলবার ব্যার্থ চেষ্টা করে যাচ্ছিল।

এই ভাবে কখন যে রাজ নিজের বসার জায়গা পরিবর্তন করে সায়নীর একেবারে পাশে উঠে এসে তার কাঁধে হাত রেখেছে সায়নী বুঝতেই পারলো না।   আরো দুই মিনিট বাদে ঐন্দ্রিলা তন্ময়ের প্যান্টের বেল্ট টেনে খুলতে খুলতে বলল, ” এই শোনো তোমরা এখন পাশের রুমে যাও তো। আমরা এখন খুলবো। একসাথে ইন্টিমেট ও হবো। এই দৃশ্য সায়নীর ভালো লাগবে না।” group sex golpo

এই কথা শুনে সায়নীর মুখে রাগে অপমানে লাল হয়ে গেছিল। সে অসহায় এর মতন তার স্বামীর দিকে একবার চাইলো। তন্ময় ঐন্দ্রিলা কে পেতে এতটাই বিভোর হয়ে গেছিল যে সে তার স্ত্রীর সঙ্গে সেই মুহূর্তে চোখে চোখ মেলাতে পারলো না। নিজের স্বামীর থেকে এই ব্যবহার পেয়ে সায়ণী টলতে টলতে উঠে দাড়ালো। তারপর ঐ ঘড় ছেড়ে ছুটে বেরিয়ে গেল। সায়নীর বেরিয়ে যাওয়ার পর তন্ময়ের সম্বিত কিছুক্ষণের জন্য হলেও ফিরে এসেছিল।সে ঐন্দ্রিলা কে ছেড়ে নিজের বউ এর মানভঞ্জন করবার জন্য যাবে বলে যেই পা বাড়িয়েছে।

ঐন্দ্রিলা তাকে হাত ধরে টেনে নিজের অর্ধ নগ্ন শরীরের উপর এনে আটকে দিল,  ওকে বুকের মধ্যে জড়িয়ে ধরে বললো” সায়নী কে এখন ডিস্টার্ব করো না। ওকে যেতে দাও। ওকে নিয়ে বেশি ভেবো  না। প্রথম প্রথম সায়নীর এই সম্পর্ক মেনে নিতে কষ্ট হবে কিন্তু পরে ও এটাকে নিজের মন থেকে মেনে নেবে। আমার বর ওর ভালই খেয়াল রাখবে। আর ও সব কিছু শিখে যাবে। আর সব থেকে ইম্পর্ট্যান্ট বিষয়, তোমাদের যৌন জীবন এর পর থেকে অনেক ইমপ্রুভ করে যাবে।এখন এসো আমরা সুখের সাগরে নিজেদের ভাসিয়ে নিয়ে যাই।” group sex golpo

তন্ময় ঐন্দ্রিলার কথাতে মন্ত্রমুগ্ধের মতন আকৃষ্ট হল। পাগলের মতন ওকে আদর করা শুরু করলো। ঐন্দ্রিলা তন্ময় কে বিছানায় নিয়ে আসলো। অন্যদিকে রাজ গিয়ে সায়নী কে সামলালো। সায়নী ঘরের বাইরে ব্যালকনি তে গিয়ে চোখের জল ফেলছিল। রাজ গিয়ে ওর পাশে দাঁড়ালো। ওর কাঁধে হাত দিয়ে স্বান্তনা দিল। তারপর ধীরে ধীরে সায়নী কে বুঝিয়ে বাঁঝিয়ে  হাত ধরে টেনে এনে ঐন্দ্রিলা রা যে রুমে লাভ মেকিং করছিল তার ঠিক পাশের রুমে এনে ঢোকালো। রুমে এসে  আরো এক পেগ করে ড্রিংক নিল।

আর শুধু নিলই না সায়নী কে নিতে বাধ্য করলো। তন্ময় আর ঐন্দ্রিলা কে ঘনিষ্ঠ ভাবে দেখে সায়নী খুব আপসেট ছিল।প্রথমে আপত্তি করলেও,  মনের হতাশা ঢাকতে ও রাজের কথা মেনে আরেক পেগ ড্রিংক ঢক ঢক করে মেরে দিল। এবারের গ্লাস টা শেষ করার পর সায়নী আর মাথা সোজা হয়ে বসে থাকতে পারলো না। মাথায় হাত দিয়ে আস্তে আস্তে বিছানায় এলিয়ে পড়লো। রাজ একটা মিস্টেরিয়াস হাসি হেসে , তার হাতের পানীয়র গ্লাস বিছানার পাশে রাখা বেডসাইড টেবিলে রেখে সায়নীর দিকে এগিয়ে আসলো। group sex golpo

আর কোনো বাধা ছাড়াই সায়নীর সালাওয়ার খুলতে আরম্ভ করলো। সায়নী চোখ খুলে যখন তাকালো রাজ কেবল মাত্র একটা জকি পরে তার উপর চড়ে তাকে নগ্ন করবার চেষ্টা করছে। সায়নী র স্বাভাবিক কারণেই প্রবল।অস্বস্তি হচ্ছিল, সায়নী নিজের হাত মাঝ খানে এনে রাজ কে আটকানোর একটা চেষ্টা করল। সেই প্রয়াস রাজ এর শক্তি আর জেদ এর কাছে কিছুই না।  সায়নী  মদ এর নেশার কারণে শরীর মন  কাবু হয়ে এসেছিল। সে চোখ বেশিক্ষন  খুলে রাখতে পারছিল না।

রাজ এর সঙ্গে টক্করে  সায়নী র মতন নিরীহ নারীর যুঝে ওঠা  প্রায় অসম্ভব   ঘটনা। এই ক্ষেত্রেও যা হবার তাই ঘটলো না। রাজ একটা সময় পর সায়নী র বার বার বাধা দেওয়ার ফলে বিরক্ত বোধ করলো। রাজ সায়নী কে বলল, ” কেনো আমাকে জোর জবরদস্তি করতে বাধ্য করছ সায়নী? তুমি কি জানো না তোমাকে তন্ময় কি কারণে এখানে নিয়ে এসেছে। কিছুই বোঝো নি। ঐন্দ্রিলা তো তোমার বর কে সব কিছু দিচ্ছে , তুমি এরকম করছ কেনো? Let’s Enjoy । group sex golpo

আমাদের সঙ্গে এখানে এসেই যখন পড়েছ কেনো বেকার বেকার সতী সাবিত্রী সাজার চেষ্টা করছ? তার চেয়েএসো না।  নিজেকে আমার সামনে খুলে দাও। কথা দিচ্ছি, সারা জীবন মনে রাখবে এরকম  আনন্দ পাবে। আমি তোমাকে সব দিক থেকে ভরিয়ে দেবো। আই লাভ ইউ… সায়নী তুমি আমার সিক্রেট জানো না। কতবার তোমার নাম করে আমি ঐন্দ্রিলা সহ অন্য দের সাথে করেছি। আর আমাকে দূরে সরিয়ে রেখ না। ”

সায়নী এই কথা শুনে চমকে উঠলো। তার চোখ দিয়ে আবারো জল বেরিয়ে আসলো। আস্তে আস্তে রাজকে   বাধা দেওয়া  বন্ধ করে দিল। রাজ সায়নীর সালওয়ার খুলে ফেলে তার ব্রার স্ট্রিপ টা টান মেরে খুলতে খুলতে বলল, thats লাইক মাই গুড গার্ল। কিচ্ছু ভেবো না আমার আদর খেতে খেতে নিজের বর এর আদর দেখবে পানসে লাগবে..! group sex golpo

এই বলে ব্রা টা শরীর থেকে আলাদা করে দিয়ে  রাজ সায়নীর ঠোঁটে নিজের ঠোঁট টা চেপে ধরলো। ধীরে ধীরে সায়নীর নরম ঠোঁট চুষতে চুষতে লেগিংস আর প্যানটি টাও নামিয়ে ফেলল। সারাদিন ধরে অনেক অবাঞ্ছিত স্পর্শ সহ্য করে করে সায়নী ভেতরে ভেতরে গরম হয়ে উঠেছিল।  রাজ ওটা টেনে খুলবার সময় দেখা গেল, টাও ভিজে গেছে। রাজ ওটা নিজের নাকের কাছে এনে ভালো করে শুকে নিয়ে বলল, তোমার এটা আজ থেকে আমার কাছে থাকবে। তোমার আমার প্রথম যৌন মিলনের স্মৃতি হিসাবে এই প্যানটি টা আমি চিরকাল আমার কাছে সযত্নে রেখে দেব।

এর জবাবে সায়নীর মুক দিয়ে কোনো শব্দ বেরালো না। রাজ সায়নীর দুই পার মাঝে সামান্য ফাঁক সৃষ্টি করে, নিজের ডান হাতের দুটো আঙ্গুল সায়নীর টাইট যোনীর ভেতর হঠাৎ করে ঢুকিয়ে দিল। আর তারপর বেশ জোরে জোরে আঙ্গুল দিয়ে যোনি মন্থন করতে শুরু করলো। যার ফলে সায়নীর সারা শরীর কেঁপে উঠলো। আস্তে আস্তে রাজের জিভ  সায়নীর ভাজিনার ত্বক ছুল। রাজ এই ভাবে সায়নীর গোপন স্পর্শকাতর স্থানের রসে ভোরে থাকা অঙ্গ চাটতে চাটতে ওকে পাগল করে তুলেছিল। group sex golpo

সায়নী এক হাত দিয়ে বিছানার চাদর আকরে ধরলো রাজ এর টর্চার এর জের  সামলাতে গিয়ে। মিনিট দশেক এই ভাবে চলবার পর সায়নী আর নিজেকে  স্থির  রাখতে পারলো না। নিজের যাবতীয় মূল্যবোধ রুচি বোধ  অস্বীকার করে শালীনতার  উর্দ্ধে গিয়ে রাজ কে কাপা কাপা গলায় বলে ফেলল, ” আমি আর থাকতে পারছি না। আমাকে কর…আর জ্বালিয় না। আমার খুব …কষ্ট হচ্ছে।।

রাজ সায়নীর কাছ থেকে এই বাক্য শুনবার জন্যই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিল। সে সায়নীর আত্মসমর্পণ তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছিল। সে সায়নীর বুকের নিপলস চেপে ধরে যোনীর ভেতরে আঙ্গুল রেখে তাকে বলল, ” কি করবো বললে আবার বল..।”
সায়নী কাপা কাপা গলায় বলল তোমার ওটা ঢোকা ও প্লিজ।।আমি আর পারছি না। আমার সারা শরীর থেকে অদ্ভুত একটা উত্তেজনা খেলছে। আমি পাগল হয়ে যাবো। group sex golpo

রাজ বলল, ” তোমাকে আমি প্রথম বার দেখেই পাগল হয়ে বিছানায় নিতে চেয়েছিলাম। তোমাকে ফিট করতে  এত সময় লাগবে ভাবি নি। আমি তোমাকে এখন লাগাতে পারি কয়েক টা শর্তে। রাজি থাকলে বলো। না হলে সারা রাত তোমাকে এই ভাবে উত্তপ্ত করবো। কিন্তু তোমাকে ভেতরের আগুন নেভাতে দেব না।”
সায়নী বললো,” কি শর্ত। বলো আমাকে। সারারাত এই সব চললে আমি পাগল হয়ে যাবো।

রাজ বলল, আজকের পর থেকে আমি যখন বলবো  যেখানে আসতে বলবো , তোমাকে আমার কাছে চলে আসতে হবে। বাড়িতে স্বামী আর বাচ্চা আছে এধরনের কোনো অজুহাত শুনবো না।
আর দ্বিতীয় শর্ত প্রয়োজন পড়লে আমি    তোমার  হাসব্যান্ড এর সামনেই তোমাকে নিয়ে sex করবো। তুমি কোনো আপত্তি করতে পারবে না। এবার বলো তুমি রাজি আছো কিনা। group sex golpo

আরো মিনিট পাঁচেক বাদে,
সায়নী র থেকে ছলে বলে কৌশলে রাজ এই সব আপত্তিকর শর্তে রাজি করিয়েই ছাড়লো।এরপরই রাজ এর সাত ইঞ্চি লম্বা ঠাটানো পেনিস সায়নীর ভেজা টাইট গুদে প্রবেশ করল। আরো মিনিট দুই পর রাজ এর উদোম গাদন খেতে খেতে সায়নী অন্য একটা ঘোরে চলে গেছিলো। সেখান থেকে ফেরা সায়নীর মতন হাউস ওয়াইফ এর পক্ষে  কঠিন ছিল। যা সর্বনাশ হবার তাই হল।

নেশার ঘোরে কোনটা ঠিক কোনটা ভুল সেটা বিচার করার মতন ক্ষমতা সায়নীর ছিল না। তাই সারা রাত রাজ সায়নী কে ঐ বিছানায় ব্যাস্ত রাখলো। সায়নী বিছানা ছেড়ে উঠতে পারলো না। আর সায়নীর ও উঠবার কোনো ক্ষমতা ছিল না। 69 পজিশনে একাধিক বার সঙ্গম করবার পর দুজনেই ক্লান্ত হয়ে জোড়া জুরি অবস্থায় অন্তরঙ্গ হয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিল।

কেমন লাগলো গল্পটি ?

ভোট দিতে হার্ট এর ওপর ক্লিক করুন

সার্বিক ফলাফল / 5. মোট ভোটঃ

কেও এখনো ভোট দেয় নি

1 thought on “group sex golpo নিজের বউ কে নিয়ে পাস পাস খেলা – 1”

Leave a Comment